ডাবল স্পিড এয়ারেটর এর দাম, বৈশিষ্ট্য ও কার্যকারিতা

ডাবল স্পিড এয়ারেটর এর বৈশিষ্ট্যঃ
– ২ ঘোড়া মটর ১০০ ভাগ কপার কয়েলে তৈরি (কপার কয়েল বাদে অন্য তার ব্যবহার প্রমানে মূল্য ফেরতের নিশ্চয়তা)
– এটিতে পাখা ও বডি দুটো ঘোরে তাই দ্বিগুন ঢেউ তৈরি হয়
– এটিতে দুই ধরনের পাখা হয় একটি আয়রন এলয় আর অন্যটি দীর্ঘস্থায়ী প্লাস্টিক মিশ্রণ, প্লাস্টিক মিশ্রণ পাখাটি দীর্ঘস্থায়ী
– মটর রক্ষার জন্য মটরের উপরে ডাকনা থাকে
– গিয়ার বক্স থকবে এবং গিয়ার ওয়েল ব্যবহার করতে হবে

ডাবল স্পিড এয়ারেটর এর কার্যকারিতাঃ
– এটি পানিতে ঘন্টায় ৪.৫ কেজি অক্সিজেন তৈরি করতে সক্ষম
– ২.৫-৩ একর (২৫০-৩০০ শতাংশ) জায়গায় একটি ডাবলস্পিড ব্যবহার করলে ২ গুণ ঘনত্বে মাছ চাষ করা যায়, ১ একর (১০০ শতাংশ) পুকুরে ব্যবহার করলে ৩-৩.৫ গুণ ঘনত্বে মাছ চাষ করা যায়
– পানিতে অক্সিজেনের সমস্যা সম্পূর্ণ দূর করে
– আক্সিজেন তৈরির ঔষধ আর প্রয়োজন হয় না
– মাছ ঠিক মত খাবার খায়, মাছের বৃদ্ধি স্বাভাবিক থাকে (শীত, গরম, মেঘলা আভহাওয়া) সব সময়
– মাছের রোগ-ব্যাধি কম হয়, সুতরাং আন্যান্য ঔষধের খরচ থাকে না বললেই চলে
– জলাশয় থেকে অন্যান্য গ্যাস (যেমন এমোনিয়া) কমাতে সাহায্য করে

ডাবল স্পিড এয়ারেটর এর বৈশিষ্ট্যঃ
– ২ ঘোড়া মটর ১০০ ভাগ কপার কয়েলে তৈরি (কপার কয়েল বাদে অন্য তার ব্যবহার প্রমানে মূল্য ফেরতের নিশ্চয়তা)
– এটিতে পাখা ও বডি দুটো ঘোরে তাই দ্বিগুন ঢেউ তৈরি হয়
– এটিতে দুই ধরনের পাখা হয় একটি আয়রন এলয় আর অন্যটি দীর্ঘস্থায়ী প্লাস্টিক মিশ্রণ, প্লাস্টিক মিশ্রণ পাখাটি দীর্ঘস্থায়ী
– মটর রক্ষার জন্য মটরের উপরে ডাকনা থাকে
– গিয়ার বক্স থকবে এবং গিয়ার ওয়েল ব্যবহার করতে হবে

ডাবল স্পিড এয়ারেটর এর কার্যকারিতাঃ
– এটি পানিতে ঘন্টায় ৪.৫ কেজি অক্সিজেন তৈরি করতে সক্ষম
– ২.৫-৩ একর (২৫০-৩০০ শতাংশ) জায়গায় একটি ডাবলস্পিড ব্যবহার করলে ২ গুণ ঘনত্বে মাছ চাষ করা যায়, ১ একর (১০০ শতাংশ) পুকুরে ব্যবহার করলে ৩-৩.৫ গুণ ঘনত্বে মাছ চাষ করা যায়
– পানিতে অক্সিজেনের সমস্যা সম্পূর্ণ দূর করে
– আক্সিজেন তৈরির ঔষধ আর প্রয়োজন হয় না
– মাছ ঠিক মত খাবার খায়, মাছের বৃদ্ধি স্বাভাবিক থাকে (শীত, গরম, মেঘলা আভহাওয়া) সব সময়
– মাছের রোগ-ব্যাধি কম হয়, সুতরাং আন্যান্য ঔষধের খরচ থাকে না বললেই চলে
– জলাশয় থেকে অন্যান্য গ্যাস (যেমন এমোনিয়া) কমাতে সাহায্য করে

ডাবল স্পিড এয়ারেটর ব্যবহারে সতর্কতাঃ
– বিদ্যুতের লাইনে যাতে ভোল্টেজ ২২০ এর কাছাকছি থাকে সে বিষয়ে লক্ষ্য রাখলে এয়ারেটরটি দীর্ঘ দিন সার্ভিস দেয়
– বিদ্যুতের লইনের জন্য কমপক্ষে ২২/৭ (৩.০ আর এম) তার ব্যবহার করতে হবে, না হলে ভাল সার্ভিস পাওয়া যাবে না
– অন্যান্য এয়ারেটর এর তুলনায় দ্বিগুন ঢেউ তৈরি হয় ফলে পাড় দুর্বল হলে পাড়ের বিশেষ যতœ নিতে হবে, অন্যথায় পাড় ভেঙ্গে যেতে পারে
– বিদ্যুতের তার যাতে কোন অবস্থাতেই পানির সংস্পশে না আসে সেদিকে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে, পানিতে কোন লোক থাকা অবস্থায় বিদ্যুৎ সংযোগ না দেওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ
– মটরে গিয়ার ওয়েল না দিয়ে কোনভাবেই মটর চালু করা উচিৎ নয় এতে মটরের গিয়ার বক্সের দাত নষ্ট হয়ে গিয়ে এয়ারেটর এর ক্ষমতা কমে যেতে পারে। আর প্রথমবার মটর চালু করার ৭-১০দিন পর গিয়ার ওয়েল ফেলে দিয়ে নতুন গিয়ার ওয়েল ব্যবহার করা উচিৎ, এরপর ৫-৬ মাস পর গিয়ার ওয়েল পরিবর্তন করা যায়, এতে মটরের ক্ষমতা ঠিক থাকে এবং মটর অনেক দিন ভাল থাকে

দাম – ৪৬০০০-৪৮০০০ টাকা (সময়ের সাথে দাম পরিবর্তনশীল)

ডাবল স্পিড এয়ারেটর কোথায় পাবেনঃ

লিডিং এগ্রো টেকলোলজী,

ঢাকা অফিস– আমানুল্লাহ সুপার মার্কেট (দ্বিতীয় তালা), তিলপাপাড়া রোড, খিলগাও রেলগেট, ঢাকা

ফোন-
০১৮১০১৯৮২০৯,
০১৮১০১৯৮২০৪,
০১৮১০১৯৮২০৫,
০১৮১০১৯৮২০৩,
০১৮১০১৯৮২০৬,
০১৮১০১৯৮২০৭,
০১৮১০১৯৮২০৮

বগুড়া অফিস- রাড-১৪, উপশহর বাজার (ওয়ালটন শোরুমের পাশে), বগুড়া – ৫৮০০

ফোন-
০১৮১০১৯৮২১০,
০১৮১০১৯৮২১১,

মেহেরপুর অফিস– মল্লিক পাড়া (বালিকা বিদ্যালয়ের পাশে), মেহেরপুর

ফোন-
০১৮৪৩৩০০৪০৯,
০১৩০১৪৬৩৫৮৭,