এয়ারেটর ব্যবহারের উপকারিতা কি

– অধিক ঘনত্বে মাছ চাষ করা যায়
– কম যায়গায় বেশি মাছ চাষ করা যায়
– পানিতে অক্সিজেনের সমস্যা সম্পূর্ণ দূর করে
– মাছের খাবি খাওয়া সম্পূর্ণ দূর করে
– আক্সিজেন তৈরির ঔষধ আর প্রয়োজন হয় না
– মাছ ঠিক মত খাবার খায়, মাছের বৃদ্ধি স্বাভাবিক থাকে (শীত, গরম, মেঘলা আভহাওয়া) সব সময়
– মাছের রোগ-ব্যাধি কম হয়, সুতরাং আন্যান্য ঔষধের খরচ থাকে না বললেই চলে
– জলাশয় থেকে অন্যান্য গ্যাস (যেমন এমোনিয়া) কমাতে সাহায্য করে
– জলাশয়ের পানির গুণাগুন ঠিক রাখে
– জলাশয়ের পানির পিএইচ (PH) ঠিক রাখে
– স্রোত তৈরির মাধ্যমে পানিতে শেওলা জমতে দেয় না
– মশার উপদ্রপ থেকে রক্ষা করে

Comments

No comments yet. Why don’t you start the discussion?

    Leave a Reply